তোমার কণ্ঠস্বর

কখনো তোমার কণ্ঠস্বর শোনার সাধ হ’লে পর
আমি কোনো একটা নিভৃত খুঁজে নিই-
খুব চুপটি ক’রে বাতাসে কান পেতে থাকি,
হয়তো শুনি মৃদু শরশর কোনো শব্দ-
কিংবা তোমার পায়ের জুতার আওয়াজ,
তুমি পিঠ ঘুরিয়ে চ’লে যাচ্ছো…
একটু একটু ক’রে সে আওয়াজও মিলিয়ে যাচ্ছে।
কানে ভেসে ওঠে কেমন একটা ফিসফিসে স্বর
আমারই কণ্ঠস্বরের মতো যেন-
ব’লছে, আর একটু থাকো…
আমি আর কোনো কণ্ঠস্বর শুনি না।
চেয়ে দেখি প’ড়ে আছে সমুখের মুখর রাস্তাটা
কেমন একটা ব্যাকুল নিরবতা সাথে ক’রে।
আর কেউ না জানুক,
কৃষ্ঞচূড়া ফুলে ছাওয়া রাস্তাটা জানে-
দুজনে মিলে আমরা হেঁটেছি এই পথে একদিন।
আমারই কি শুধু মনে আছে আজো,
এই পথে আরো একবার হাঁটতে চেয়েছি আমরা-
ঠিক সেই দিনের মতো?
আমি বাতাসে কান পেতে থাকি…

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s