তুমি কখনোই নিশ্চিত ক’রে পারো না ব’লতে

অল্প বয়সে প্রেমের বিয়ে, মুরুব্বিরা তবু নিয়েছিলো মেনে।
মনে হ’য়েছিলো সবুজ আসলেই বেসেছিলো ভালো যুথিকে,
তারপর ব’লেছিলো ‘কবুল’ যুবক বর আর যুবতী কনে।
‘আহা জীবন!’ আওড়েছিলো মুরুব্বিরা, ‘কি যে আছে ভবিষ্যতে-
কখনোই নিশ্চিত ক’রে তা কেউ পারো না ব’লতে!’

একটা দুইরুমের এ্যাপার্টমেন্ট নিয়ে ওরা পেতেছিলো ঘর,
কিছু সস্তায় কেনা আসবাব আর অল্প কিছু পাওয়া উপহার,
ওয়ালটনের ফ্রিজ ভরে থাকে দেশী মাছ আর কাগুজে লেবুতে,
ইচ্ছে মতো গলা ভেজানো যায় মিষ্টি ঠাণ্ডা সরবতে,
আর রাতে টিভি দেখতে দেখেতে খাওয়া- আহা কি মধুর!
এরপর দুইজনা চাকরী পেলে আরো গুছিয়ে ওঠে সংসার।
‘আহা জীবন!’ আওড়েছিলো মুরুব্বিরা, ‘কি যে আছে ভবিষ্যতে-
কখনোই নিশ্চিত ক’রে তা কেউ পারো না ব’লতে!’

একটা ক্যাসেট-প্লেয়ারও ছিলো ওদের, বাজাতো উচ্চস্বরে প্রায়
বেশ ভালো সংগ্রহ- রবীন্দ্র-শচীন থেকে জেমস-বাচ্চু কি নেই!
কিন্তু কোনো কোনো রাতে আর
উঠতো না বেজে সেই ক্যাসেট প্লেয়ার।
‘আহা জীবন!’ আওড়েছিলো মুরুব্বিরা, ‘কি যে আছে ভবিষ্যতে-
কখনোই নিশ্চিত ক’রে তা কেউ পারো না ব’লতে!’

ওরা ঠিক করে বছরপূর্তিতে ঘুরতে যাবে কক্সবাজারের সৈকতে
গ্রিনলাইনের নতুন গাড়ি ওদেরকে নিয়ে ছাড়ে গভীর রাতে,
সুন্দরতম যুথির সাথে সেখানে দারুন কাটে সময় সবুজের
দীর্ঘতম সৈকতের পাড়ে ওরা আরো কাছে আসে পরষ্পরের।
‘আহা জীবন!’ আওড়েছিলো মুরুব্বিরা, ‘কি যে আছে ভবিষ্যতে-
কখনোই নিশ্চিত ক’রে তা কেউ পারো না ব’লতে!’

নোট : চাক বেরির ‘য়ু নেভার ক্যান টেইল’ অবলম্বনে…

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  পরিবর্তন )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  পরিবর্তন )

Connecting to %s