কবিতা · বিচ্ছিন্ন পঙক্তি

বিচ্ছিন্ন পঙক্তি ৩১

কতবার বানের পানিতে ভেসে গেছে বসতি
অভাগা এই জলাঙ্গির দেশে,
কতবার ফেরেনি গ্রামের অর্ধেক মানুষ,
কত অল্পের তরে মানুষ দিয়ে গেছে জীবন-
আবার তুচ্ছ কারণে নিয়েছেও শতেক প্রাণ!
কে জানে তাদের কয়জনা ছিলো আপন!
কয়জনা কেঁদে ভাসিয়েছিলো বুক,
আর কয়জনা ফেলেছিলো স্বস্তির নিঃশ্বাস…
এতএত শতাব্দীর আকাঙ্ক্ষার সম্মিলন
আর অগণিত আত্মার বলিদানেও
সময়কে আজো স্থিরতর করা গেলো না!
তবুও মানুষ আসে মানুষের ডাকে
বানের স্রোতের মতো অনিশ্চিয়তা সাথে নিয়ে!
কোন সে অস্থিরতা ঠোকরায় তাকে প্রতিনিয়ত?
অনিশ্চয়তার থলিতেই কেন যত প্রলোভন!
ওগো! তুমি কি জানো কতটা দূরত্ব,
সময়ের কাছে কতটা নিসহায় সমর্পন,
আর কতটা নিষ্ফলা আস্থার উচ্চারণ-
ভেসে বেড়ায় বুড়ো শকুনের সুস্থির চোখে!
বারবার কেন এখানেই বান ডাকে…
তার কতটা জানো তুমি, ওগো নিয়তি?

কবিতা

হাবিবের জন্মদিনের শুভেচ্ছা বার্তা-২০১১

কত হলো বয়স-
যুবতী না জানুক;
যতই কমুক কোমর-
তুই তো পেটুক।

সাহসী লোকজন
নাকি বাঘ-ভালুক;
তবু কেন বগুড়া-
পালাস অহেতুক!!